Anwar Ispat

শনিবার

২২ জানুয়ারি ২০২২


৯ মাঘ ১৪২৮,

১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

Rangdhonu Group

বেইজিং অলিম্পিক নিয়ে মুখোমুখি যুক্তরাষ্ট্র-চীন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || বিজনেস ইনসাইডার

প্রকাশিত: ১৫:৩৩, ৭ ডিসেম্বর ২০২১  
বেইজিং অলিম্পিক নিয়ে মুখোমুখি যুক্তরাষ্ট্র-চীন

ছবি: সংগৃহীত

KSRM

ঢাকা (০৬ ডিসেম্বর): চীনের বেইজিংয়ের শীতকালীন অলিম্পিক কূটনৈতিকভাবে বয়কটের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। চীনে মানবাধিকার লংঘনের অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্র চীনে কোন প্রতিনিধিদল পাঠাবে না বলে হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জেন সাকি জানিয়েছেন। এ পদক্ষেপের জবাবে চীনও পাল্টা পদক্ষেপ নেবে বলে জানিয়েছে। খবর বিবিসি, আল-জাজিরা।

সোমবার হোয়াইট হাউস থেকে বলা হয়েছে, পশ্চিমাঞ্চলীয় জিংজিয়ান অঞ্চলে উইঘুর মুসলমানদের ওপর অত্যাচার এবং চীনে মানবাধিকার লংঘনের প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্র এবার ওলিম্পিকে কোন আনুষ্ঠানিক প্রতিনিধি পাঠাবে না।

হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জেন সাকি বলেন, চীনের জিংজিয়ানে গণহত্যাসহ মানবতা বিরোধী অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে। এছাড়া অন্যান্য স্থানেও মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটছে। এসব বিষয় বিবেচনা করে বাইডেন প্রশাসন বেইজিং ২০২২ শীতকালীন অলিম্পিক এবং প্যারাঅলিম্পিকে কোন কূটনীতিক বা সরকারি প্রতিনিধি পাঠাবে না।   ফলে সেখানে স্বাভাবিক কার্যকলাপ চলতে পারে না। যুক্তরাষ্ট্র এমন ‘পরিষ্কার বার্তা’ দিতে চায়।

তিনি বলেন, মার্কিন কূটনীতিক বা সরকারি প্রতিনিধি পাঠানোর মানে হচ্ছে এ অলিম্পিক গেমসকে যথারীতি সাধারণ বিষয় হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র কখনো এটা করবে না।
 
জেন সাকি বলেন, আসন্ন অলিম্পিকে যারা ‘টিম ইউএসএ’ গঠন করবেন, তাদের পূর্ণাঙ্গ সহযোগিতা করা হবে। কিন্তু এ উপলক্ষে কোনো ধরনের আনুষ্ঠানিকতায় যাবে না প্রশাসন।

বিবিসি জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের খেলোয়াড়েরা ব্যক্তিগতভাবে বেইজিং অলিম্পিকের প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন। সেক্ষেত্রে কোনো বাধা থাকবে না। তবে, যুক্তরাষ্ট্র সরকারের কোনো প্রতিনিধিদল সেখানে যাবে না।

এদিকে ব্রিটেনও মঙ্গলবার বলেছে, তারাও বেইজিং ওলিম্পিক বর্জণের বিষয়টি বিবেচনা করছে। ব্রিটেনের উপপ্রধানমন্ত্রী ডমিনিক রাব বলেছেন, ‘আমি যাব কি না, জানতে চাওয়া হয়েছিল। আমি সেখানে যাচ্ছি না এবং বাকী বিষয়টও আমরা সেভাবেই পদক্ষেপ নিচ্ছি।

গত মাসে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন চীনের ওপর কূটনৈতিক বয়কট বা নিষেধাজ্ঞার কথা বলেছিলেন। মার্কিন পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসিও চীনের মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রতিবাদে পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেছেন।

চীন যুক্তরাষ্ট্রের এ পদেক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছে। একই সঙ্গে বেইজিংও যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি দিয়েছে।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজান বলেন, চীনও পাল্টা ব্যবস্থা নেবে। তবে তিনি এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি।   

মঙ্গলবার মিডিয়া ব্রিফিংয়ে ঝাও লিজান যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ‘ক্রীড়াক্ষেত্রে রাজনৈতিক নিরপেক্ষতা’ লংঘনের অভিযোগ তোলেন। তিনি বলেন ‘মিথ্যা এবং গুজবের ওপর নির্ভর করে’ যুক্তরাষ্ট্র অলিম্পিক বয়কটের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।       

 

UCB
Nagad

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়