শনিবার

১৮ মে ২০২৪


৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,

১০ জ্বিলকদ ১৪৪৫

রাজনীতি নিয়ে ডোনাল্ড লুর সঙ্গে আলোচনা হয়নি: পরিবেশমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক || বিজনেস ইনসাইডার

প্রকাশিত: ১৩:৩৩, ১৫ মে ২০২৪  
রাজনীতি নিয়ে ডোনাল্ড লুর সঙ্গে আলোচনা হয়নি: পরিবেশমন্ত্রী

সংগৃহিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: পরিবেশ, বন ও জলবায়ু বিষয়ক মন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী বলেছেন, ঢাকা সফররত মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি ডোনাল্ড লুর সঙ্গে বৈঠকে জলবায়ু, টেকসই উন্নয়ন ও দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বিষয়ে কথা হয়েছে, রাজনীতি নিয়ে কোনো কথা হয়নি।

আজ বুধবার (১৫ মে) সকালে সচিবালয়ে ডোনাল্ড লুর সঙ্গে বৈঠক শেষে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, দুদেশের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। কিভাবে সম্পর্ক আরও গতিশীল ও উন্নত করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, জলবায়ু ফান্ড নিয়ে কাজ করা সংস্থাগুলোর কাজ থেকে ফান্ডিং ও সাপোর্ট পাওয়ার বিষয়ে আমরা কথা বলেছি। জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে কাজ করার নানা বিষয়সহ বিদ্যমান প্রযুক্তিগত সহায়তা সেবা পাবার বিষয়ে আমরা আমেরিকার সমর্থন চেয়েছি। জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক স্যাটেলাইট প্রযুক্তির ডেটা সহায়তাও চেয়েছি। আমরা জলবায়ু বিষয় নিয়ে কিভাবে কাজ করছি সে সংক্রান্ত কাজের তথ্যগুলো উপস্থাপন করেছি। আগামী দিনে গ্রিন প্রজেক্ট বাস্তবায়নের জন্য একযোগে কাজ করার বিষয়ে সহায়তা চেয়েছি।

তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিগ্রস্থ মানুষদের জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের অব্যাহত সমর্থন করার ওপর জোর দিয়েছি। জলবায়ু সহায়তার বিষয়ে আমরা কোনো অংকের কথা বলিনি, আমরা সবখাতে আমাদের চাহিদা ও অগ্রাধিকারগুলো জানিয়েছি। গ্রিন প্রকল্পে যৌথভাবে কাজের কথা বলেছি।

এ সময় মন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন, টেকসই উন্নয়নসহ কোনো চুক্তি আজ হয়নি। তবে, নানা বিষয়ে চুক্তিতে পৌঁছানোর কাজ চলছে, যাতে করে আমরা যৌথভাবে কাজ করতে পারি। বন্যা, বনধ্বংস, লস অ্যান্ড ড্যামেজ নানা বিষয়ে আমেরিকা প্রযুক্তিগত, স্যাটেলাইটগত ডেটা সহায়তা করবে সে বিষয়ে আশ্বাস দিয়েছেন ডোনাল্ড লু। আমরা বলেছি প্লাস্টিক দূষণ এখন দেশে মারাত্মক পর্যায়ে আছে, সেটা কমাতে কিভাবে যৌথভাবে কাজ করব সে বিষয়ে জোর দিয়েছি।

বৈঠক শেষে ডোনাল্ড ল্যু সাংবাদিকদের বলেছেন, বাংলাদেশের সঙ্গে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে এবং পরিবেশ রক্ষার বিভিন্ন খাতে এক হয়ে কাজ করবে যুক্তরাষ্ট্র।

Walton

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়