বুধবার

২৯ মে ২০২৪


১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,

২০ জ্বিলকদ ১৪৪৫

রেলস্টেশন ও বাস টার্মিনালে বাড়ছে ঘরমুখী মানুষের চাপ

নিজস্ব প্রতিবেদক || বিজনেস ইনসাইডার

প্রকাশিত: ১৫:০৮, ৭ এপ্রিল ২০২৪  
রেলস্টেশন ও বাস টার্মিনালে বাড়ছে ঘরমুখী মানুষের চাপ

সংগৃহিত

নিজস্ব প্রতিবেদক : একদিকে বিপর্যয়মুক্ত ট্রেনের শিডিউল, অন্যদিকে যানজটমুক্ত মহাসড়কে বাসের ছুটে চলা। সব মিলিয়ে অনেকটা ভোগান্তিহীন যাত্রায় রাজধানী ছেড়ে ঈদ উদ্‌যাপনে বাড়ির পানে ছুটছেন নগরবাসী। তবে গত কয়েক দিনের তুলনায় আজ (রোববার) কমলাপুর রেলস্টেশন এবং বাস টার্মিনালগুলোতে বেড়েছে ঘরমুখী মানুষের চাপ।

এবারের ঈদযাত্রায় সমান্তরাল রেলপথকে বেঁছে নিয়েছেন যারা তাদের নেই আগের মতো চিরচেনা দুর্ভোগ-ভোগান্তি। প্রায় প্রতিটি ট্রেনই ছাড়ছে শিডিউল মেনে যথাসময়ে।

সরেজমিন সকালে কমলাপুর রেলস্টেশন ঘুরে দেখা যায়, চেকিংয়ের পর শত শত মানুষ স্টেশনে প্রবেশ করছেন। কারো কাছে টিকিট না থাকলে তাকে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। আবার একই জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে একাধিক টিকিট কাটায় যাত্রা বাতিল হয় বেশ কয়েকজনের। রেলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা পুরো বিষয়টি স্টেশনে দাঁড়িয়ে তদারকি করেন।

আবার স্বস্তিতে ট্রেনে উঠতে পেরে যাত্রীদের চোখেমুখেও উচ্ছ্বাস দেখা গেছে। রাজধানীর কমলাপুর ও ক্যান্টনমেন্ট রেলস্টেশন থেকে এবার ভাগ করে ছাড়া হচ্ছে ট্রেন। আজ ৪২টি আন্তঃনগর ট্রেনের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ২টি ঈদ স্পেশাল আন্তঃনগর ট্রেন।

এদিকে রাজধানীর গাবতলী ও সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে বাড়িফেরা মানুষের ভিড় দেখা গেছে। সকালে সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা যায়, বাড়ি ফিরতে সকাল থেকেই বাস টার্মিনালে ভিড় জমাচ্ছেন যাত্রীরা। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যাত্রীর সংখ্যাও বাড়ছে।

তবে সন্তুষ্ট নন পরিবহন সংশ্লিষ্টরা। দীর্ঘ ছুটিতে অনেকেই আগেভাগে ঢাকা ছাড়ায় যাত্রীখরার দাবি তাদের।

অন্যদিকে যাত্রীচাপ তুলনামূলক কম এবং মহাসড়কে যানজট না থাকায় খুশি সাধারণ যাত্রীরা। তাদের প্রত্যাশা যথাসময়ে পৌঁছে পরিবারের সঙ্গে আনন্দের ঈদ উদযাপনের।

এদিন গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি, হালকা বাতাস আর মেঘলা আবহাওয়ার কারণে গত কয়েক দিনের তুলনায় তাপমাত্রা কম থাকায় ছিল না ভ্যাপসা গরমের ভোগান্তিও।

Walton

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়