শুক্রবার

৩১ মে ২০২৪


১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,

২২ জ্বিলকদ ১৪৪৫

৯ম-১০ম শ্রেণি: রেজিস্ট্রেশন শুরু ১ জুন

নিজস্ব প্রতিবেদক || বিজনেস ইনসাইডার

প্রকাশিত: ১৩:৩৯, ২৯ মে ২০২৩  
৯ম-১০ম শ্রেণি: রেজিস্ট্রেশন শুরু ১ জুন

সংগৃহীত

নিজস্ব প্রতিবেদক: ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে নবম শ্রেণিতে ভর্তি ও অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া আগামী ১ জুন থেকে শুরু হবে। জনপ্রতি রেজিস্ট্রেশন ফি (বিলম্ব ফি ছাড়া) ১৭১ টাকা ধার্য করা হয়েছে।  আগামী ১ জুন থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত বিলম্ব ফি ছাড়া ফি জমা দেওয়া যাবে। এসময়ের পরে ১৪০ টাকা বিলম্ব ফিসহ ৩১১ টাকা প্রদান করে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

গতকাল রোববার (২৮ মে) ঢাকা শিক্ষা বোর্ড থেকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক প্রফেসর মোহাম্মদ আবুল মনছুর ভূঞাঁ স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত জরুরি নির্দেশনা স্বীকৃতিপ্রাপ্ত ও পাঠদানের অনুমতিপ্রাপ্ত সব মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ, প্রধান শিক্ষককে পাঠানো হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে- ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে নবম শ্রেণিতে ভর্তি ও অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরু হতে যাচ্ছে। জেএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ায় তিন বছরের মধ্যে দেশের যেকোনো মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডে/মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত জেএসসি বা জেডিসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা নবম শ্রেণিতে ভর্তির সুযোগ পাবে। নবম শ্রেণিতে ভর্তিকৃত সকল শিক্ষার্থীর অভিভাবকের মোবাইল নম্বরসহ সকল তথ্য অনলাইনে আপলোড করতে হবে। অনলাইনে আপলোডকৃত তথ্য না থাকলে শিক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন দাবি করা যাবে না। নিবন্ধনের সময় লক্ষ্য রাখতে হবে যে, কোনো শিক্ষার্থীর বয়স ১২ বছর পূর্ণ না হলে এবং ১৮ বছরের অধিক হলে তাকে নবম শ্রেণিতে ভর্তি করা যাবে না।

বিলম্ব ফি ব্যতীত জনপ্রতি ১৭১ টাকা ও বিলম্ব ফিসহ জনপ্রতি ৩১১ টাকা রেজিস্ট্রেশন ফি নির্ধারণ করা হয়েছে। রেজিস্ট্রেশনের জন্য তথ্য আপলোড করার লক্ষ্যে স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের সমন্বয়ে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি রেজিস্ট্রেশন কমিটি গঠন করতে হবে। অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করা পর চূড়ান্ত তালিকা ফাইনাল সাবমিটের পূর্বে দায়িত্বপ্রাপ্ত কমিটির সদস্যদের দ্বারা বিদ্যালয়ে রক্ষিত ভর্তি ফরম ও সনদের সঙ্গে মিলিয়ে যথাযথভাবে নিশ্চিত করতে হবে। নিশ্চিত হওয়ার পর ফাইনাল সাবমিট করতে হবে। এতে কোনো অবস্থায় শিক্ষার্থীকে নিযুক্ত করা হবে না। চূড়ান্ত তালিকার প্রিন্ট আউট (হার্ড কপি) প্রতিষ্ঠানে সংরক্ষণ করতে হবে। শিক্ষার্থীর তথ্যে ভুল-ক্রুটির জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান ও কমিটির সদস্যরা যৌথভাবে দায়ী থাকবেন বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

Walton

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়