United Commercial Bank (UCB)

মঙ্গলবার

০৯ আগস্ট ২০২২


২৫ শ্রাবণ ১৪২৯,

০৯ মুহররম ১৪৪৪

রূপপুর বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য ৪০২ কোটি টাকা ছাড়

আসিফ শওকত কল্লোল || বিজনেস ইনসাইডার

প্রকাশিত: ১৭:০১, ২৮ জুন ২০২২  
রূপপুর বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য ৪০২ কোটি টাকা ছাড়

ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা (২৮ জুন): দেশের অন্যতম বৃহৎ রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য রাশিয়ার ঋণের ৪০২ কোটি টাকা ছাড় করেছে সরকার। ২০২১-২২ অর্থবছরের রাজস্ব বাজেট থেকে এ অর্থ ছাড় করা হচ্ছে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ঋণের অর্থ না পাওয়া পর্যন্ত সরকার রাজস্ব বাজেট থেকে অর্থ ছাড় করতে পারে না।

অর্থ বিভাগের কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সরকারের রাজস্ব তহবিল থেকে অর্থ ছাড় করা যায়নি। কারণ, রাষ্ট্রীয় তহবিল থেকে অর্থ ছাড়ের শেষ দিন ছিল ২২ জুন।

পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের জন্য সরকারের তৃতীয় ও চতুর্থ কিস্তির অংশ হিসেবে অর্থ বিভাগ গত সপ্তাহে অর্থ ছাড় করেছে।

অর্থ বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ইউক্রেন যুদ্ধের জন্য রাশিয়ার বিরুদ্ধে পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও রাশিয়ান ফেডারেশন বিদায়ী অর্থবছরে ১৩ হাজার ৩৫২ দশমিক ৫ কোটি টাকা ছাড় করেছে। কেননা, এই মেগা প্রকল্পের বেশিরভাগ অর্থের যোগান দিচ্ছে রাশিয়া।

তবে সুইফট আন্তর্জাতিক পেমেন্ট সিস্টেমের অনুমোদন ছাড়া এবং রাশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আন্তর্জাতিক রিজার্ভের উপর থাকা বিধিনিষেধের মধ্যে কীভাবে রাশিয়ান ঋণ বাংলাদেশে আসবে সেটা স্পষ্ট নয়।

বিদায়ী অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে, দেশের বৃহত্তম এ অবকাঠামো প্রকল্পের জন্য ১৮ হাজার ৪২৬ কোটি টাকার পরিকল্পনা করা হলেও সেটা থেকে কমিয়ে ১৪ হাজার ৮৩৬ কোটি টাকা অনুমোদন করা হয়েছিল।

২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেটে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্পে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) থেকে সর্বোচ্চ প্রায় ১৩ হাজার ৩৯৬ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

এ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ১ লাখ ১৩ হাজার ৯২ কোটি টাকা। রাশিয়া ঋণ হিসেবে দিচ্ছে ৯১ হাজার ৪০ কোটি টাকা আর বাকি টাকার যোগান দিচ্ছে বাংলাদেশ সরকার।

সরকার ২০২৩ সালের মধ্যে ১,২০০-মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন রূপপুর ইউনিট-ওয়ান এবং ২০২৪ সালের মধ্যে ১,২০০-মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন রূপপুর ইউনিট-টু চালু করার পরিকল্পনা করেছে।

 

Nagad

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়