রোববার

২৬ জুন ২০২২


১২ আষাঢ় ১৪২৯,

২৫ জ্বিলকদ ১৪৪৩

আরও ২৪১৫ বাংলাদেশী হজ্ব পালনের সুযোগ পাচ্ছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক || বিজনেস ইনসাইডার

প্রকাশিত: ১৩:৩২, ২৩ জুন ২০২২   আপডেট: ১৩:৪৮, ২৩ জুন ২০২২
আরও ২৪১৫ বাংলাদেশী হজ্ব পালনের সুযোগ পাচ্ছেন

ফাইল ছবি, সংগৃহিত

ঢাকা (২৩ জুন): বাংলাদেশ থেকে চলতি বছরের হজ্ব মৌসুমে আরও ২ হাজার ৪১৫ জনকে হজ্বে যাওয়ার সুযোগ দিচ্ছে সৌদি সরকার।  ২ হাজার ৪১৫ জনের মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১১৫ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ২ হাজার ৩০০ জন হজ্ব করার সুযোগ পাবেন বলে বাংলাদেশের ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

গতকাল বুধবার মন্ত্রণালয়ের এক চিঠিতে বাংলাদেশের জন্য নির্ধারিত অতিরিক্ত এই কোটা পূরণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। হজ্ব এজেন্সি অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সভাপতি এম শাহাদাৎ হোসেন আজ বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

করোনা পরিস্থিতির অবনতির কারণে গত দুই বছর বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশ থেকেও কেউ হজে যেতে পারেননি। করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় চলতি বছর বিভিন্ন দেশ থেকে ১০ লাখ মুসল্লিকে হজ্ব পালনের অনুমতি দেয় সৌদি সরকার।

আগের কোটা অনুযায়ী, চলতি বছর বাংলাদেশ থেকে ৫৭ হাজার ৫৮৫ জন মুসল্লি পবিত্র হজ্ব পালনের সুযোগ পাচ্ছেন। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৪ হাজার ৫৬৪ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৫৩ হাজার ৫৮৫ জন মুসল্লি পবিত্র হজে যেতে পারবেন। এ ছাড়া, কোটা বাড়ানোয় বাংলাদেশ থেকে আরও ২ হাজার ৪১৫ জন পবিত্র হজ্ব করার সুযোগ পাচ্ছেন।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের হজ সংক্রান্ত হেল্প ডেস্কের তথ্য অনুযায়ী, বুধবার পর্যন্ত মোট ৩১ হাজার ৫৩৯ জন হজ করতে সৌদি আরব গেছেন। তাদের মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় গেছেন ৩ হাজার ৩৮৫ জন আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ২৮ হাজার ১৫৪ জন।

এদিকে, হজ্বযাত্রী নিয়ে বাংলাদেশ থেকে এ পর্যন্ত ৮৭টি ফ্লাইট পরিচালিত হয়েছে। এর মধ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ৪৭টি, সৌদি এয়ারলাইন্সের ৩৫টি এবং ফ্লাইনাস এয়ারলাইন্সের পাঁচটি। সৌদি আরবের উদ্দেশে হজ্বযাত্রীদের শেষ ফ্লাইট ৩ জুলাই। হজ্ব শেষে ফিরতি ফ্লাইট শুরু হবে ১৪ জুলাই, আর ফিরতি ফ্লাইট শেষ হবে ৪ আগস্ট।

UCB
Nagad

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়