শনিবার

১৫ জুন ২০২৪


১ আষাঢ় ১৪৩১,

০৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

তানভীর-নীলার নতুন সিনেমা ‘অন্তর্বর্তী’

ডেস্ক রিপোর্ট || বিজনেস ইনসাইডার

প্রকাশিত: ১৯:১১, ২২ মার্চ ২০২৩  
তানভীর-নীলার নতুন সিনেমা ‘অন্তর্বর্তী’

সংগৃহীত

ডেস্ক রিপোর্ট: ঢাকার অদূরে সৌন্দর্যের রানী খ্যাত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোমুগ্ধকর ক্যম্পাসে শেষ হলো বহুল আলোচিত 'অন্তর্বর্তী' সিনেমার শুটিং। ক্যাম্পাসের পুরাতন কলা, চৌরাঙ্গী, বিশমাইল, এলাকায় শুটিংয়ের দৃশ্য ধারণ করা হয়।

ক্যাম্পাস কেন্দ্রিক প্রেম, সামাজিক বিচ্ছিন্নতাবোধ ও একজন শিল্পীর শিল্পী হয়ে ওঠার দীর্ঘ যাত্রার গল্প নিয়ে সিনেমাটি সাজানো হয়েছে। এই সিনেমার মধ্য দিয়ে এস এম কাইয়ুম চৌধুরীর বড় পর্দায় অভিষেক ঘটছে।

সিনেমায় নায়ক-নায়িকা হিসেবে জুটি বেঁধেছেন আবু হুরায়ারা তানভীর ও নীলাঞ্জনা নীলা। সিনেমার গল্পে তানভীর অভিনয় করছেন ধ্রুব চরিত্রে এবং নীলাঞ্জনা নীলা অভিনয় করছেন অর্পা চরিত্রে। এর আগে 'গহীন বালুচর' সিনেমার এই জুটি ব্যাপক দর্শক সমাদৃত হয়েছেন। 

এদিকে তানভীর সর্বশেষ মীর সাব্বিরের পরিচালনায় 'রাত জাগা ফুল' সিনেমায় অভিনয় করেছেন। এতে তার বিপরীতে ছিলেন জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী। এদিকে 'টান' ওয়েব ফিল্মে নীলা'র অভিনয়ও বেশ প্রশংসিত হয়েছে।

এছাড়াও সিনেমায় অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের রঙিন পর্দায় দারুণ জনপ্রিয় মুখ আহমেদ রুবেল। মঞ্চ থেকে টিভি নাটকের পর্দা কিংবা চলচ্চিত্র বৈচিত্রপূর্ণ চরিত্রে অভিনয়ের ক্যারিয়ার তার।

অন্তর্বর্তীতে অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করছেন, আমিরুল হক চৌধুরী, রহমাত আলী, সেঁওতি, নরেশ ভূঁইয়া, খন্দকার নাসির উদ্দিন, আনু মোহাম্মদ (মো. আনোয়ারুল ইসলাম) সহ আরো অনেকে।

পরিচালক এস এম কাইয়ুম জানান, 'এই সিনেমার গল্পটি মূলত বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস কেন্দ্রিক প্রেমের গল্পের সিনেমা, যেখানে আছে সামাজিক বিচ্ছিন্নতাবোধ ও এক জন শিল্পীর শিল্পী হয়ে ওঠার দীর্ঘ জার্নি। অন্তর্বর্তীর শুটিং শেষ হয়েছে, এডিটিংয়ের কাজ চলছে। আমরা সবাই আশাবাদী কাজটি নিয়ে।'

সহকারী পরিচালক আনু মোহাম্মদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের চিরাচরিত ঘটনা নিয়ে এই সিনেমা। জাহাঙ্গীরনগর ও আইইউবিএটি ক্যম্পাস, কেরানীগঞ্জসহ ঢাকা শহরের বিভিন্ন স্থানে সিনেমার শুটিং হয়েছে। সিনেমার শুটিং নিয়ে ব্যাপক আশাবাদী। দর্শকদের ভাল লাগার দিকে লক্ষ্য রেখে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা করেছি। সবকিছু ঠিক থাকলে এই বছরের শেষের সিনেমাটি মুক্তি পাবে।

এছাড়াও সিনেমার প্রথম সহকারী পরিচালক হিসেবে ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের ৪৩ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী আনু মোহাম্মদ, আর্ট ডিরেক্টর হিসেবে ছিলেন বাংলা বিভাগের ৪৭ ব্যাচের শিক্ষার্থী খন্দকার নাসির উদ্দিন, তৃতীয় সহকারী পরিচালক হিসেবে ছিলেন একই বিভাগ ও ব্যাচের গোলাম ফারুক জয়। এই সিনেমার মধ্য দিয়ে ক্যম্পাসের এই দুই পরিচিত মুখ বড় পর্দায় অভিষেক ঘটলো।

Walton

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়